ThePeakPlace

Bangla Technology Center

সকল কারকে সপ্তমী (৭মী) বিভক্তির প্রয়োগ।

পোস্টটি শেয়ার করুণ

কারক ও বিভক্তি বাংলা ব্যাকরণের অবিচ্ছেদ্য অংশ। কারক বিভক্তি পড়তে হয়না এমন ছাত্রকে পাওয়া যাবেন। কিন্তু কারক বিভক্তি মনে রাখা অনেকেরই কাছে জটিল মনে হয়। ইংরেজি গ্রামারের চেয়ে বাংলা ব্যাকরণ বেশ কঠিণ। মনে রাখার জন্য আমাদের বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করতে হয়।

কারক ৬ প্রকার।    (ক) কর্তৃকারক  (খ) কর্মকারক   (গ) করণ কারক  (ঘ) সম্প্রদান কারক (ঙ) অপাদান কারক (চ) অধিকরণ কারক

কারক ও বিভক্তি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন

সপ্তমী  বিভক্তি হচ্ছে- এ, য় ,তে।

আসুন সহজেই জেনে  সকল কারকে সপ্তমী বিভক্তি ( এ, য়, তে) মনে রাখার সহজ টেকনিক। নিচের বাক্যটি মনে রাখুন।

পাগুটা দীপতি।

পা= পাগলে কিনা বলে।

( পাগলে কর্তৃকারকে সপ্তমী। এখানে পাগলের শেষে এ বিভক্তি যোগহয়েছে। )

গু= গুরুজনে সালাম দাও।

(কাকে সালাম দাও? গুরুজনে। এখানে গুরুজন কর্মকারক। আর এর শেষে যোগ হয়েছে এ বিভক্তি।)

টা= টাকায় কিনা হয়।

(টাকার দ্বারা কিনা হয়। এখানে টাকা হচ্ছে করণ কারক । আর এর শেয়ে য় যোগ হয়েছে। )

দী= দীনে দয়া করো।

( দয়া করে মানুষ নিৰস্বার্থভাবে। নিৰস্বার্থ বুঝালে সম্প্রদান কারক হয়। আর দীন এর শেষে যোগ হয়েছে এ বিভক্তি।)

প= পরাজয়ে ডরেনা বীর।

(ভীত, উৱপন্ন, গৃহীত বুঝালে অপাদান কারক হয়। আর পরাজয় এর শেষে যোগ হয়েছে এ বিভক্তি।)

তি= তিলে তৈল আছে।

কোথায়,কখন বুঝালে অধিকরণ কারক হয়।কোথায় তৈল আছে? তিলে। সুতারং তিল অধিকরণ কারক। আর এর শেষে যোগ হয়েছে এ বিভক্তি।)

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন। কোন মতামত থাকলে তা জানান।

 

পোস্টটি শেয়ার করুণ

Leave a Reply

ThePeakPlace © 2018 Frontier Theme