সকল কারকে শূণ্য বিভক্তির প্রয়োগ।

পোস্টটি করা হয়েছে:- নভে ৫ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-

কারক ও বিভক্তি বাংলা ব্যাকরণের অবিচ্ছেদ্য অংশ। কারক বিভক্তি পড়তে হয়না এমন ছাত্রকে পাওয়া যাবেন। কিন্তু কারক বিভক্তি মনে রাখা অনেকেরই কাছে জটিল মনে হয়। ইংরেজি গ্রামারের চেয়ে বাংলা ব্যাকরণ বেশ কঠিণ। মনে রাখার জন্য আমাদের বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করতে হয়। কারক ৬ প্রকার।    (ক) কর্তৃকারক  (খ) কর্মকারক   (গ) করণ কারক  (ঘ) সম্প্রদান কারক (ঙ) অপাদান কারক (চ) অধিকরণ কারক কারক ও বিভক্তি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন। শূণ্য বিভক্তি হচ্ছে- অ, (০) শূণ্য। আসুন সহজেই জেনে  সকল কারকে শূণ্য বিভক্তি ( অ, শূণ্য) মনে রাখার সহজ টেকনিক। নিচের বাক্যটি মনে রাখুন। অপু, তাজ বস। অ= অমল বই পড়ে। ( কে… [বিস্তারিত পড়ুন] »


সকল কারকে সপ্তমী (৭মী) বিভক্তির প্রয়োগ।

পোস্টটি করা হয়েছে:- অক্টো ৩১ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-
সকল কারকে সপ্তমী বিভক্তির প্রয়োগ

কারক ও বিভক্তি বাংলা ব্যাকরণের অবিচ্ছেদ্য অংশ। কারক বিভক্তি পড়তে হয়না এমন ছাত্রকে পাওয়া যাবেন। কিন্তু কারক বিভক্তি মনে রাখা অনেকেরই কাছে জটিল মনে হয়। ইংরেজি গ্রামারের চেয়ে বাংলা ব্যাকরণ বেশ কঠিণ। মনে রাখার জন্য আমাদের বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করতে হয়। কারক ৬ প্রকার।    (ক) কর্তৃকারক  (খ) কর্মকারক   (গ) করণ কারক  (ঘ) সম্প্রদান কারক (ঙ) অপাদান কারক (চ) অধিকরণ কারক কারক ও বিভক্তি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন। সপ্তমী  বিভক্তি হচ্ছে- এ, য় ,তে। আসুন সহজেই জেনে  সকল কারকে সপ্তমী বিভক্তি ( এ, য়, তে) মনে রাখার সহজ টেকনিক। নিচের বাক্যটি মনে রাখুন। পাগুটা দীপতি। পা= পাগলে কিনা বলে। ( পাগলে… [বিস্তারিত পড়ুন] »


একটি স্বার্থক বাক্যের কয়টি গুণ থাকে?

পোস্টটি করা হয়েছে:- অক্টো ১৭ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-
image of qualities of sentence

একটি স্বার্থক বাক্যের কী কী গুণ থাকতে পারে? যে সুবিন্যস্ত পদসমষ্টি দ্বারা কোনো বিষয়ে বক্তার মনোভাব সম্পূর্ণরূপে প্রকাশিত হয়, তাকে বাক্য বলে।অর্থাৎ পরস্পর সম্পর্কযুক্ত এক বা একাধিক শব্দ সুশৃঙ্খলভাবে বসে যদি একটি অর্থ প্রকাশ করে তখন তাকে বাক্য বলে। বাক্যের বিভিন্ন পদের মধ্যে পারস্পারিক সম্পর্ক থাকা আবশ্যক। ভাষার বিচারে একটি স্বার্থক বাক্যের তিনটি গুন থাকা আবশ্যক। ১। আকাঙক্ষা:- বাক্যের অর্থ পরিষ্কারভাবে বোঝার জন্য এক পদের পর অন্য পদ শোনার যে ইচ্ছা তাকে আকাঙক্ষা বলে। যেমন-সূর্য পূর্বদিকে-বললে বাক্যটি অসম্পূর্ণ। এটি মনের ভাব সম্পূর্ণ করতে পারেনি।এর পরে আরো কিছু কথা বা শব্দ শোনার ইচ্ছা হয়।যখন- সূর্য পূর্বদিকে ওঠে-বললে বাক্যটি পূর্ণতা পাবে। তাই… [বিস্তারিত পড়ুন] »


একটি বাক্যের মাধ্যমে সকল কারক এর প্রয়োগ।

পোস্টটি করা হয়েছে:- জুলা ১২ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-
একটি বাক্যে কারক ও বিভক্তি

কারক ও বিভক্তি বাংলা ব্যাকরণের অবিচ্ছেদ্য অংশ। কারক বিভক্তি পড়তে হয়না এমন ছাত্রকে পাওয়া যাবেন। কিন্তু কারক বিভক্তি মনে রাখা অনেকেরই কাছে জটিল মনে হয়। ইংরেজি গ্রামারের চেয়ে বাংলা ব্যাকরণ বেশ কঠিণ। আজকের এই পর্বে আমরা জানবো একটি বাক্যের মাধ্যমে সকল কারকের পরিচিতি। বেগম সাহেবা প্রতিদিন ড্রাম থেকে নিজ হাতে গরিবদের চাল দিতেন। এখানে ১। বেগম সাহেবা                 কর্তৃকারক ২। চাল                          কর্মকারক ৩। হাতে                         করণ কারক ৪। গরিবদের                     সম্প্রদান কারক ৫। ড্রাম                          অপাদান কারক ৬। প্রতিদিন                     অধিকরণ কারক কে বা কারা দ্বারা প্রশ্ন করে উত্তর পাওয়া গেলে কর্তৃকারক। কে প্রতিদিন ড্রাম থেকে নিজ… [বিস্তারিত পড়ুন] »


কারক ও বিভক্তি মনে রাখার কৌশল।

পোস্টটি করা হয়েছে:- জুলা ১২ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-
কারক ও বিভক্তি

কারক ও বিভক্তি বাংলা ব্যাকরণের অবিচ্ছেদ্য অংশ। কারক বিভক্তি পড়তে হয়না এমন ছাত্রকে পাওয়া যাবেন। কিন্তু কারক বিভক্তি মনে রাখা অনেকেরই কাছে জটিল মনে হয়। ইংরেজি গ্রামারের চেয়ে বাংলা ব্যাকরণ বেশ কঠিণ। আসুন সহজেই জেনে নেই কারক ও বিভক্তি মনে রাখার সহজ টেকনিক। কারক ছয় প্রকার। ১।কর্তৃকারক:যে কাজ করে সেই কর্তা বা কর্তকারক। যেমন: আমি ভাত খাই। বালকেরা মাছে ফুটবল খেলছে। এখানে মনে রাখার উপায় হচ্ছে ‘কে’ বা ‘কারা’ দিয়ে প্রশ্ন করে উত্তর পেলে সেই কর্তা বা কর্তৃকারক। কে ভাত খায়? উত্তর হচ্ছে আমি কারা ফুটবল খেলছে ? উত্তর হচ্ছে-বালকেরা। তাহলে আমি এবং বালকেরা হচ্ছে কর্তৃকারক। ২। কর্মকারক: কর্তা যে… [বিস্তারিত পড়ুন] »


বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাহিত্যকর্ম।

পোস্টটি করা হয়েছে:- জুন ২৩ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-
image of rabindranath's works

বাংলা সাহিত্যের প্রবাদ পুরুষ হচ্ছেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। বাংলা ভাষাকে কবিতা, প্রবন্ধ, ছড়া এবং অন্যান্য লেখার মাধ্যমে বিশ্বের দরবারে অন্যতম শ্রেষ্ট ভাষায় পরিনত করার পেছনে তার অবদান অনস্বীকার্য। তিনিই একমাত্র বাঙালি কবি ‍যিনি সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। আজ এই কবির জীবনে যে সব সাহিত্য রচনা আমরা পাই তার কয়েকটি নিয়ে আলোচনা করা হলো। জন্মঃ ৭ মে ১৮৬১ বাংলা ২৫ শে বৈশাখ ১২৬৮। মৃত্যুঃ ৭ই আগস্ট ১৯৪১ বাংলা ২২ শ্রাবণ ১৩৪৮ কাব্যগ্রন্থঃ ক্রমিক কাব্যগ্রন্থ প্রকাশের সময়কাল ১।  বনফুল  ১৮৮০ ২।  গীতাঞ্জলী  ১৯১০ ৩।  সোনারতরী  ১৮৯৪ ৪।  মানসী  ১৮৯০ ৫।  চিত্রা  ১৮৯৬ ৬।  ক্ষণিকা  ১৯০০ ৭।  খেয়া  ১৯০৬ ৮।  বলাকা  ১৯১৬… [বিস্তারিত পড়ুন] »


জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের সাহিত্যকর্ম।

পোস্টটি করা হয়েছে:- জুন ১৫ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-
image of kazi nazrul's works

বিদ্রোহী কবি, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম (১৮৯৯-১৯৭৬) চুরুলিয়ার সেই ছেলেটি ঝাঁকড়া মাথার চুল তিনি সবার প্রিয় কবি কাজী নজরুল। হা চুরুলিয়ার সেই ছেলেটি ‍যিনি আমাদের সবার প্রিয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম। বাংলা সাহিত্যকে তিনি নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। বাংলা কবিতা এবং কাজী নজরুল ইসলাম যেন এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। যিনি সবার সাহিত্য জগতে প্রেরণার উৎস। আজ এই মহান কবির সংক্ষিপ্ত জীবনে যে সাহিত্যের ভান্ডার রচনা করে গেছেন তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু সাহিত্যকর্ম নিয়ে আলোচনা করবো। কাব্যগ্রন্থঃ- ১। অগ্নিবীণা (১৯২২)           ২। বিষের বাঁশী (১৯২৪)         ৩। দোলনচাঁপা (১৯২৩)          ৪। ছায়ানট (১৯২৫) ৫। সিন্ধু হিন্দোল (১৯২৭)        ৬।… [বিস্তারিত পড়ুন] »


বাংলা সাহিত্যের মহাকাব্যগুলোর নাম ও রচয়িতা।

পোস্টটি করা হয়েছে:- জুন ১৪ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-
epic in bangla literature

মহাকাব্য যে কোন সাহিত্যের একটি অনবদ্য সৃষ্টি। আর এই মহাকাব্য ঐ ভাষারই একটি অলংকার।আমাদের মাতৃভাষা বাংলাও পিছিয়ে নেই মহাকাব্যের দিক থেকে। মহাকাব্য কি? পাশ্চাত্য আদর্শানুসারে মহাকাব্য হচ্ছে বীরত্বব্যঞ্জক কাহিনী। মহৎ জীবন কাহিনী অবলম্বন করে বিস্তৃত আকারে গুরুগম্ভীর ভাবকল্পনা ও ঐশ্বর্যময় শব্দভান্ডারে সজ্জিত করে যে কাব্য রচনা লেখা হয় তাকে মহাকাব্য বলে। মহাকাব্য একটি বস্তুনিষ্ঠ কবিতা। বাংলা সাহিত্যের মহাকাব্য রচয়িতাগণ: বাংলা সাহিত্যের মহাকাব্য এবং এর রচয়িতাদের নাম নিম্নে দেওয়া হলো। ১। মেঘনাদবধ কাব্য (১৮৬১) =   মাইকেল মধুসুদন দত্ত ২। মহাশ্মশান  (১৯০৫) = কায়কোবাদ ৩। স্পেন বিজয় কাব্য  (১৯১৪) = সৈয়দ ইসমাইল হোসেন সিরাজী ৪। রৈবতক  (১৮৮৭) = নবীন চন্দ্র সেন ৫।… [বিস্তারিত পড়ুন] »


বাংলা ভাষায় বিখ্যাত নাটক সমূহ।

পোস্টটি করা হয়েছে:- জুন ১৩ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-
image of bangla natok

বাংলা ভাষায় রচিত কতিপয় বিখ্যাত ঐতিহাসিক নাটক এবং তাদের রচয়িতার নাম।   ক্রমিক ঐতিহাসিক নাটক রচয়িতা ১।  কৃষ্ঞকুমারী মাইকেল মধুসুদন দত্ত ২।  প্রায়শ্চিত্ত রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ৩।  রক্তাক্ত প্রান্তর মুনীর চৌধুরী ৪।  সিরাজউদ্দৌলা গিরীশচন্দ্র ঘোষ ৫।  শাজাহান দ্বিজেন্দ্রলাল রায় ৬।  বাংলার মসনদ ক্ষিরোদ প্রসাদ বিদ্যাবিনোদ ৭।  টিপু সুলতান মহেন্দ্র গুপ্ত ৮।  নাদির শাহ আকবর হোসেন ৯।  সিরাজউদ্দৌলা শচীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত ১০।  কামাল পাশা ইব্রাহীম খাঁ ১১।  স্পেন বিজয়ী মুসা ইব্রাহীম খলিল ১২।  সফররাজ খাঁ শাহাদাৎ হোসেন ১৩।  অগ্নিগিরি আসকার ইবনে শাইখ বাংলা ভাষায় রচিত কতিপয় বিখ্যাত সামাজিক নাটক এবং তাদের রচয়িতার নাম।   ক্রমিক সামাজিক নাটক রচয়িতা ১।  নীলদর্পন দীনবন্ধু মিত্র ২।… [বিস্তারিত পড়ুন] »


কবি সাহিত্যিকদের উপাধি সমূহ।

পোস্টটি করা হয়েছে:- জুন ১১ ২০১৬ পোস্টটি করেছেন:-
image of the title of poets

যে সব কবি সাহিত্যিকগণ আমাদের বাংলা ভাষাকে লেখনি শক্তির মাধ্যমে বিশ্বের দরবারে উচ্চ মর্যাদার আসনে আসীন করেছেন তাদেরকে বিভিন্ন উপাধিতে ভূষিত করা হয়েছিল। আজকের পর্বে আমরা জানবো বাংলা ভাষায় বিভিন্ন কবি ও সাহিত্যিকদের উপাধিসমূহ। ক্রমিক কবি/ সাহিত্যিকদের নাম উপাধী ১। কাজী নজরুল ইসলাম বিদ্রোহী কবি, জাতীয় কবি ২। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বিশ্বকবি, নাইট ৩। জসীমউদ্দীন পল্লী কবি ৪। গোলাম মোস্তফা কাব্য সুধাকর ৫। ফররুখ আহমম মুসলিম রেঁনেসার কবি ৬। বঙ্কিমচন্দ্র টট্টোপধ্যায় সাহিত্য সম্রাট ৭। ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগর, গদ্যের জনক ৮। হেমচন্দ্র বাংলার মিলটন ৯। ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত যুগ সন্ধিক্ষণের কবি ১০। ভারত চন্দ্র রায় গুনাকর ১১। জীবনানন্দ দাস রূপসী বাংলার কবি, তিমির… [বিস্তারিত পড়ুন] »


: