সাধারন বিজ্ঞান বিসিএস ও চাকুরীর প্রস্তুতি পর্ব-২৪।


পোস্ট করা হয়েছে:- আগ ৬ ২০১৬| পোস্টটি করেছেন:- |পোস্টটি পড়া হয়েছে:- 847বার
পোস্টটি শেয়ার করুণ

বিসিএস ও অন্যান্য চাকরী পরীক্ষার জন্য সাধারন বিজ্ঞান বাধ্যতামূলক। বিসিএস প্রিলীমিনারী পরীক্ষায় ২০০ নম্বরের মধ্যে ১৫ নম্বর আসবে সাধারণ বিজ্ঞান থেকে।তাই বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য আমরা শুরু করেছি ধারা বাহিক টিউটরিয়াল সাধারন বিজ্ঞানের উপর।  বিসিএস পরীক্ষা বা অন্যান্য চাকরী পরীক্ষার জন্য নিয়মিত পড়ুন আমাদের সাধারন বিজ্ঞানের পোস্টগুলো। আজকের পর্বে ইনশাআল্লাহ জানবো সাধারন বিজ্ঞানের (জীব বিজ্ঞান, পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ন বিজ্ঞান, উদ্ভিদবিদ্যা ইত্যাদি) সম্পর্কে নতুন কোন তথ্য।

সাধারন বিজ্ঞান বিসিএস প্রিলীমিনারী পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি

১। হ্রস্ব দৃষ্টিশক্তি সম্পন্ন ব্যক্তিকে দেয় হয়–

উত্তরঃ- অবতল লেন্স

২। বার্ধক্যজনিত দৃষ্টিহীনতায় দেয়া হয়–

উত্তরঃ- বাই ফোকাল লেন্স

৩। মায়নাস লেন্স বলতে আমরা কি বুঝি?

উত্তরঃ- অবতল লেন্স

৪। সিলিনড্রিকেল লেন্স ব্যবহার করে–

উত্তরঃ- বিষম দৃষ্টি সম্পন্ন লোক

৫। প্রখর রোদে পিচঢালা রাস্তার দিকে তাকালে কিছু রাস্তা পানিসিক্ত মনে হয় কেন?

উত্তরঃ-আলোর প্রতিসরণ

৬।একটি নীল কাঁচকে উত্তপ্ত করলে এর থেকে বের হবে-

উত্তরঃ- লাল রং

৭। পরিষ্কার পানিতে মাছ প্রকৃত স্থান থেকে একটু উঁচুতে দেখা যায় কেন?

উত্তরঃ- আলোর প্রতিসরণের জন্য

৮। বিদ্যুৎবিল পরিশোধ করার সময় আমরা যার জন্য বিল পরিশোধ করি তা হচ্ছে–

উত্তরঃ- শক্তি

৯। বৈদ্যুতিক ক্ষমতার একক —

উত্তরঃ- ওয়াট

১০। বিদ্যুৎ পরিবাহকের রোধের একক–

উত্তরঃ- ওহম

১১। যে তাপমাত্রায় উত্তপ্ত করলে চুম্বকের চুম্বকত্ব নষ্ট হয় তাকে বলে–

উত্তরঃ- কুরী বিন্দু

১২। প্রতিটি চুম্বক দন্ডই গঠিত হয়–

উত্তরঃ- অসংখ্য ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র চুম্বকের সমন্বয়ে

১৩। বৈদ্যুতিক ঘন্টায় ব্যবহার করা হয়?

উত্তরঃ- এসি তড়িৎ চুম্বক

১৪। নতুন পদ্ধতিতে তড়িৎ উৎপাদনে ব্যবহৃত —

উত্তরঃ- পারমাণবিক শক্তি

১৫। আলোক বিদ্যুৎকোষ ব্যবহৃত হয়–

উত্তরঃ- ক্যালকুলেটরে

১৬। স্থায়ীত্ব ‍বৃ্দ্ধির জন্য বৈদ্যুতিক বাতিতে ব্যবহৃত হয়–

উত্তরঃ- নাইট্রোজেন

১৭। বিদ্যুৎ সম্পন্ন পদার্থ বিদ্যুৎহীন পদার্থকে–

উত্তরঃ- আকর্ষণ করে

১৮। বৈদ্যুতিক আবেশ দ্বারা চার্জ উৎপাদনে সবচেয়ে সরল যন্ত্র—

উত্তরঃ- ইলেক্ট্রোফেরাস

১৯। স্থায়ী চুম্বক নির্মাণে সুবিধাজনক —

উত্তরঃ- ইস্পাত

২০। বৈদ্যুতিক চুম্বক নির্মাণে সুবিধাজনক–

উত্তরঃ- লোহা

২১। পনির তরঙ্গ, তারের তরঙ্গ ও কঠিন পদার্থের তরঙ্গ কোনটির উদারহন?

উত্তরঃ- আড় তরঙ্গের উদাহরন

২২। শব্দ তরঙ্গ চলতে পারেনা কোন মাধ্যমে?

উত্তরঃ- শূণ্য মাধ্যমে

২৩। একটা ভাল শব্দ নিরোধক ঘরের দেওয়ালের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে–

উত্তরঃ- সমস্ত শব্দ শুষে নেওয়া

২৪। শব্দ সবচেয়ে দ্রুতবেগে চলে–

উত্তরঃ- গরম ও ভিজা বাতাসে

২৫। প্রতিফলিত শব্দকে কী বলে?

উত্তরঃ- প্রতিধ্বনি

২৬। আকাশে বিদ্যুৎ চমকাবার পর তার শব্দ শোনা যায় কেন?

উত্তরঃ- আলোর গতি শব্দের গতির চেয়ে বেশি

২৭। কম্পাঙ্ক বাড়লে শব্দের তীক্ষতা —

উত্তরঃ- বাড়ে

২৮। শব্দের সাহায্যে নির্ণয় করা যায়না কোনটি?

উত্তরঃ- বস্তুর ঘনত্ব

২৯। শব্দ শক্তির কারণ কী?

উত্তরঃ- বস্তুর কম্পন

৩০। এলিফ্যান্থিয়াসিস রোগ হয় কোন প্রাণীর কামড়ে?

উত্তরঃ- কিউলেক্স মশা

৩১। মানবদেহেরে কোন অঙ্গে এঞ্জিওপ্লাস্টিক করা হয়?

উত্তরঃ- হার্ট এ

৩২। পেস মেকার অপর কোন নামে পরিচিত?

উত্তরঃ- এ.এস.নোড

৩৩। রোগ প্রতিরোধক পেনিসিলিন কিসের দ্বারা উৎপন্ন হয়?

উত্তরঃ- ব্যাকটেরিয়া দ্বারা

৩৪। হ্যানিসেনের রোগ কোন রোগের অপর নাম?

উত্তরঃ- টিউমার

৩৫। প্লাস্টিক সার্জারির জনক কে?

উত্তরঃ- আইভারসন

৩৬। মেডিসিনের জনক বলা হয় কাকে?

উত্তরঃ- হিপোক্রেটিসকে

৩৭। ট্রাকোমা রোগটি কোন অঙ্গের সাথে জড়িত?

উত্তরঃ- চক্ষু

৩৮। কুষ্ঠ চিকিৎসা করা হয় —– দ্বারা।

উত্তরঃ- সালফোনস

৩৯। এইডস রোগ বাহিত হয়—– দ্বারা।

উত্তরঃ- ভাইরাস

৪০। Aspirin কী?

উত্তরঃ- একটি ড্রাগ

৪১। কোন অস্ত্র খারাপ হলে ডায়াবেটিস হয়?

উত্তরঃ- অগ্ন্যাশয়

৪২। ডেঙ্গু রোগের কারণ হচ্ছে–

উত্তরঃ- ভাইরাস

৪৩। ব্লাড সুগার হচ্ছে প্রবাহিত রক্তের —- এর মাত্রা।

উত্তরঃ- গ্লুকোজ

৪৪। ক্যাপসুলের খোলক কি দ্বারা নির্মিত?

উত্তরঃ- শ্বেতসার

৪৫। অ্যালার্জি থেকে কোনরোগটি হতে পারে?

উত্তরঃ- অ্যাজমা

সাধারন বিজ্ঞানের প্রতিটি টিউটরিয়াল এ আপনাদের জন্য তুলে নিয়ে আসি জীব বিজ্ঞান, পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়ন বিজ্ঞান, উদ্ভিদবিদ্যা ও মৃত্তিকা বিজ্ঞানের নতুন কোন তথ্য। নিয়মিত অনুশীলনের মাধ্যমে আপনি নিজকে প্রস্তুত করতে থাকুন বিসিএস প্রিলীমিনারী পরীক্ষার জন্য

পোস্টটি শেয়ার করুণ

সর্বশেষ আপডেট: আগস্ট ৬th, ২০১৬ সময়: ১০:০৯ পূর্বাহ্ণ, আপডেট করেছেন মুনজুরুল আলম (এডমিন)


লেখক পরিচিতিঃ- মুনজুরুল আলম (এডমিন)

আসসালামু আলাইকুম। আমি মুনজুরুল আলম। বর্তমানে একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছি। আমি ছোট বেলা থেকে লেখলেখি করায় মজা পাই। আমি মনে করি জানার কোন শেষ নেই। আমি সবার কাছ থেকে শিখতে পছন্দ করি। আর আমার শেখা তখনই স্বার্থক হবে যখন তা অন্যের কাছে পৌছে দিতে পারব।আর আমি চাই সবাইকে আমার ওয়েবসাইটে মেধা বিকাশের সুগোয দিতে। তাই আপনিও পারেন আমাদের ওয়েব সাইটের একজন লেখক হতে। তাহলে আজই রেজিস্ট্রেশন করুন ।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.