বিশ্বের প্রধান নদ-নদী এবং তাদের দৈর্ঘ্য।


পোস্ট করা হয়েছে:- জানু ২৩ ২০১৭| পোস্টটি করেছেন:- |পোস্টটি পড়া হয়েছে:- 818বার
পোস্টটি শেয়ার করুণ

পৃথিবীর মোট আয়তনের প্রায় শতকরা ৭১% পানিরাশি দ্বারা বেষ্টিত এবং বাকী ২৯% এর মত স্থলভাগ বেষ্টিত। এই বিশাল জলভাগের মধ্যে আছে মহাসাগর, নদ-নদী ইত্যাদি। সাধারণ জ্ঞানের আজকের পর্বে আমরা জানবো- বিশ্বের প্রধান নদ-নদী এবং তাদের দৈর্ঘ্য।

নীলনদঃ-এটি বিশ্বের দীর্ঘতম নদী। এটি আফ্রিকায় অবস্থিত। মিশর, তাঞ্জানিয়া, রুয়ান্ডা, উগান্ডা, দক্ষিণ সুদান, বুরুন্ডি, কঙ্গো, কেনিয়া সহ ১০টি দেশে এই নীলনদ অবস্থিত। মিশরকে নীলনদের দান বলা হয়। এর দৈর্ঘ্য ৬৬৬৯ কিলোমিটার।

আমাজানঃ- আমাজান বিশ্বের প্রশস্ততম নদী। এটির অবস্থান দক্ষিণ আমেরিকার দেশ- ব্রাজিল, পেরু, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর সহ কয়েকটি দেশে। এর দৈর্ঘ্য ৬২৭৫ কিলোমিটার।

মিসিসিপি-মিসৈৗরিঃ- এটি উত্তর আমেরিকায় তথা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত। উত্তর আমেরিকার বৃহত্তম নদী এটি। এর দৈর্ঘ্য ৫৯৯০ কিলোমিটার।

ইয়াংসিকিয়াংঃ- এটি এশিয়ার চীনে অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ৫৯৭০ কিলোমিটার।

হোয়াংহোঃ- এটিও এশিয়ার দেশ চীনে অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ৪৬৬৮ কিলোমিটার। চীনের দূ:খ বলা হয হোয়াংহো নদীকে।

কঙ্গোঃ- আফিকায় অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ৪৩৭৩ কিলোমিটার। এটি নীলনদের পরে আফ্রিকার দ্বিতীয় বৃহত্তম নদী।

আমুরঃ- এটি তুর্কমেনিস্তানে অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ৪৩৪৪ কিলোমিটার যা এশিয়া তথা পৃথিবীর অন্যতম বৃহত্তম নদী হিসেবে খ্যাত।

লেনাঃ- রাশিয়ায় অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ৪২৬৪ কিলোমিটার।

মেকংঃ- এটি চীনে অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ৪১৮০কিলোমিটার।

মারে ডার্লিংঃ- এটি অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ৩৭১৮ কিলোমিটার। এটি ওশেনিয়া মহাদেশের বৃহত্তম নদী।

ভলগাঃ- ইউরোপে অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ৩৬৮৫ কিলোমিটার। এটি ইউরোপ মহাদেশের বৃহত্তম নদী।

সেন্ট লরেন্সঃ- এটি কানাডায় অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ৩১৩২ কিলোমিটার।

সিন্ধুঃ- এটি ভারত ও পাকিস্তানে অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ২৮৯৬ কিলোমিটার।

ব্রহ্মপুত্রঃ- এটি ভারত ও বাংলাদেশে অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ২৮৯৬ কিলোমিটার।

দানিয়ুবঃ- এটি ইউরোপে অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ২৮৬০ কিলোমিটার।

ইউফ্রেটিসঃ- এশিয়ায় অবস্থিত। এর দৈর্ঘ্য ২৮০০ কিলোমিটার।

 

পোস্টটি শেয়ার করুণ

সর্বশেষ আপডেট: জানুয়ারি ২৩rd, ২০১৭ সময়: ১২:৪৭ অপরাহ্ণ, আপডেট করেছেন মুনজুরুল আলম (এডমিন)


লেখক পরিচিতিঃ- মুনজুরুল আলম (এডমিন)

আসসালামু আলাইকুম। আমি মুনজুরুল আলম। বর্তমানে একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছি। আমি ছোট বেলা থেকে লেখলেখি করায় মজা পাই। আমি মনে করি জানার কোন শেষ নেই। আমি সবার কাছ থেকে শিখতে পছন্দ করি। আর আমার শেখা তখনই স্বার্থক হবে যখন তা অন্যের কাছে পৌছে দিতে পারব।আর আমি চাই সবাইকে আমার ওয়েবসাইটে মেধা বিকাশের সুগোয দিতে। তাই আপনিও পারেন আমাদের ওয়েব সাইটের একজন লেখক হতে। তাহলে আজই রেজিস্ট্রেশন করুন ।


৪ টি মন্তব্য রয়েছে “বিশ্বের প্রধান নদ-নদী এবং তাদের দৈর্ঘ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.